img

চট্টগ্রামের ঝুঁকিপূর্ণ ১৭ পাহাড় আগামী এক মাসের মধ্যে অবৈধ দখলমুক্ত করতে মালিকদের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন।
দুই পাহাড় থেকে সরানো হল ১০০ পরিবারকে । মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটির ১৯তম সভা থেকে চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান এ নির্দেশ দেন।

একই সঙ্গে ওইসব পাহাড়ে বসবাসকারীদের মধ্যে অবৈধভাবে দেওয়া গ্যাস, পানি ও বিদ্যুৎ সংযোগ আগামী ১৫ দিনের মধ্যে বিচ্ছিন্ন করার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয় সভায়।

সভার শুরুতে পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দেলোয়ার হোসেন জানান, চট্টগ্রামে সরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি মালিকানাধীন মিলিয়ে ১৭টি পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে ৮৩৫টি পরিবার বসবাস করছে।

এসব পাহাড়ের মধ্যে ১০টি ব্যক্তি মালিকানাধীন এবং বাকি সাতটির মালিক সিটি করপোরেশন, রেলওয়ে, চট্টগ্রাম ওয়াসা, গণপূর্ত ও জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ।

সভার সভাপতি বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান বলেন, আগামী ১৫ মের মধ্যে এসব পাহাড় অবৈধ দখলমুক্ত করতে হবে। সরকারি যেসব প্রতিষ্ঠান রয়েছে তাদের নিজ উদ্যোগেই পাহাড়কে অবৈধ দখলমুক্ত করতে হবে। এছাড়া ব্যক্তি মালিকানাধীন পাহাড়গুলোকে তাদের অবৈধ বসতি সরিয়ে নিতে চিঠি দেওয়া হবে।

পাহাড় দখলমুক্ত ও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রমে জেলা প্রশাসন সহায়ত করবে বলেও সভায় সিদ্ধান্ত হয়।

সভায় সরকারি বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেনসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বর্ষা মৌসুমে প্রায়ই পাহাড় ধসে প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এজন্য প্রতিবছরই বর্ষার আগে পাহাড়ে ঝুঁকিতে থাকা পরিবারগুলোকে সরে যাওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়। প্রশাসনের পক্ষ থেকেও পরিবারগুলোকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ