img

বাংলা নববর্ষে কাশিমপুর কারাগারে প্রায় নয় হাজার বন্দির জন্য বিশেষ খাবারের  পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়েছে।

রোববার নববর্ষের আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছাড়াও বন্দিরা  রশি টানাটানি, মোরগের লড়াই, হাড়ি ভাঙা, তৈলাক্ত বাঁশ বেয়ে ওঠার প্রতিযোগিতায় মেতেছিলেন।

এবারের নববর্ষের খাবারে ছিল পান্তা, রুই, শুঁটকি ভর্তা, ভাত, আলুর দম, আলু ভর্তা, মুরগির মাংস, পোলাও, ঠাণ্ডা পানীয়, পান-সুপারি, কাঁচামরিচ-পিঁয়াজ।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এর সুপার সুব্রত কুমার বালা জানান, এ কারাগারে কারাগারে বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম পিন্টুসহ সাড়ে তিন হাজারেরর বেশি বন্দি রয়েছেন।তাদের মধ্যে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রয়েছেন ১৩০ জরেন মতো।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর সুপার (ভারপ্রাপ্ত) সুব্রত কুমার বালা  বলেন, এ কারাগারে জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীসহ দুই হাজারের উপরে বন্দি রয়েছেন। তাদের মধ্যে ৮০ জনের মতো ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত রয়েছেন।

কারাগার-১ ও কারাগার-২-এ বন্দিদের অংশগ্রহণে দেশাত্মবোধক গান, নাটিকা, দৌড়, মোরগের লড়াই, হাড়িভাঙা, তৈলাক্ত বাঁশে ওঠার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে আড়াই হাজারের বেশি বন্দি রয়েছেন বলে জানান এ কারাগারের ভারপ্রাপ্ত সুপার শাহজাহান আহমেদ।

তিনি জানান, এ কারাগারে বন্দিরে মধ্যে সাত শতাধিক ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রয়েছেন। এখানে বন্দিদের অংশগ্রহণে যাদু প্রদর্শন, নাটিকা, চিত্রনায়ক মান্না ও ডিপজলের কন্ঠে অভিনয়ের ডায়লগ প্রদান, রশি টানাটানি, বস্তা দৌড়, দেশাত্মবোধক গান, তৈলাক্ত বাঁশে ওঠা ইত্যাদি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।  

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারের সুপার শাহজাহান আহমেদ জানান, এ মহিলা কারাগারে নয়শরও বেশি নারী বন্দি রয়েছেন।তাদের মধ্যে ১৯ জন রয়েছেন ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত। এছাড়া এখানে বন্দিদের ৭৪ জন শিশুও রয়েছে।

নববর্ষ উপলক্ষে এ কারাগারে নারী বন্দিদের জন্য রশি টানাটানি, হাঁড়ি ভাঙা, বস্তা দৌড় এবং শিশুদের জন্য বিস্কুট দৌড় ও মোরগের লড়াই ছাড়াও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় বলে তিনি জানান।

কারা কর্মকর্তারা জানান, বন্দিদের খাবার তালিকায় ছিল সকালে পান্তা, রুই মাছ,  আলু ভর্তা, কাঁচা মরিচ, পিঁয়াজ, দুপেুরে সাদা ভাত, মাছ, আলুর দম, ডিম, রাতে পোলাও, মুরগির মাংস, সালাদ, পান-সুপারি ও শীতল পানীয়।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ