img

নির্বাচন পরবর্তী অস্থিতিশীল পরিস্থিতি মোবাইলে ধারণ করার অপরাধে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাইটিভি প্রতিনিধি ও প্রতিদিন খবর পত্রিকার প্রকাশক এস এম সোহেল রানার উপর অতর্কিত হামলা করেছে স্থানীয় ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ফাহিম ও তার সঙ্গীরা। 
রোববার রাত নয়টার পর গাজীপুরের শ্রীপুর (মাওনা চৌরাস্তা) এলাকায় ওই হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় সোহেল রানাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।  
সাংবাদিক এস এম সোহেল রানার ভাই আমানউল্লাহ বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গেলে তারা আমার উপরেও চড়াও হতে চেয়েছিল। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় সোহেল ভাইকে উদ্ধার করা হয়।
সোমবার সকালে হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় আহত সাংবাদিক সোহেল রানা জানান, গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদ আলম রবিনের বাসায় হামলা চালানোর সময় ছবি তুলতে গেলে ফাহিম ও তার ক্যাডার বাহিনী হঠাৎ তার ওপরে হামলা চালায়। যে মোবাইল দিয়ে ছবি তোলা হচ্ছিল সেটাও ছিনিয়ে নেয়া হয়।
শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাবেদুল ইসলাম বলেন, সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনার রাতেই কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা ফাহিমকে ধরার চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য, গতকাল রোববার শ্রীপুরে তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে ছাত্রলীগ নেতা ফাহিম খন্দকার সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট শামসুল আলম প্রধান বিজয়ী হওয়ার পর এ ঘটনা ঘটে।
সাংবাদিক সোহেল রানা বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ঢাকা জেলা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্বে আছেন। 
এদিকে এ হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও দোষীদের দ্রæত গ্রেপ্তার দাবি করেছেন বিএমএসএফ’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সোহেল ও ঢাকা জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ। এ সময় বিএমএসএফ’র নেতারা বলেন অপরাধী যত বড় ক্ষমতাসীন ব্যক্তি হোক না কেন এই হামলার জবাব তাকে দিতে  হবে। এ ব্যাপারে তারা কঠোর কর্মসূচি  হাতে নেয়ার কথা জানান। 
 

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ