img

১৫৭ আরোহী নিয়ে বিধ্বস্ত হওয়া ইথিওপিয়ার উড়োজাহাজটির কেউই আর জীবিত নেই। দেশটির এয়ারলাইন্সের এক টুইটার বার্তায় এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে যাওয়ার লক্ষে উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পর স্থানীয় সময় রোববার সকাল পৌনে ৯টার দিকে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়।

দুর্ঘটনাস্থলে থাকা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা গ্যাব্রি ম্যারিয়ামের একটি ছবি পোস্ট করেছে এয়ারলাইন্সে টুইটার অ্যাকাউন্ট। সেখানে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় কেউ জীবিত নেই জানিয়ে দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, বোয়িং ৭৩৭ উড়োজাহাজটিতে ১৪৯ জন যাত্রী এবং আটজন ক্রু ছিলেন। আদ্দিস আবাবা থেকে ৬২ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বে বিশফটু শহরের কাছে এটি বিধ্বস্ত হয়।

আদ্দিস আবাবার বোলে বিমানবন্দর থেকে সকাল ৮টা ৩৮ মিনিটে উড়াল দেওয়ার পর কয়েক মিনিটের মাথায় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয় উড়োজাহাজটির। ৯টা ৪৪ মিনিটে এটি বিধ্বস্ত হয়।

এয়ারলাইন্সের এক কর্মকর্তা নাম না প্রকাশ করার শর্তে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম ইথিওপিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনকে বলেন, সর্বমোট ৩৩টি দেশের আরোহী ছিলেন ওই উড়োজাহাজটিতে। এদের কেউই আর বেঁচে নেই।

এয়ারলাইন্সের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার স্থানটিতে উদ্ধার ও তল্লাশি অভিযান চলছে। এয়ারলাইন্সের কর্মীদের পাঠানো হয়েছে। জরুরি সেবাদানকারীদের যতটা সম্ভব সহায়তা করছেন। তবে হতাহতদরে নিয়ে কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি বিবৃতিটিতে।

দুর্ঘটনার বর্ণনা দিয়ে এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, বিধ্বস্ত হওয়ার পর উড়োজাহাজটিতে বিস্ফোরণ ও আগুন ধরে যায়। আগুনের তীব্রতা এত বেশি ছিল যে কেউই কাছে যেতে পারছিলেন না।  

ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ এ ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করে একটি টুইট করেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ