img

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে মাদকাসক্ত ছেলে নাইম বেপারী (২৩)। রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে উপজেলার ভোজেশ্বর ইউনিয়নের আনাখন্ড গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘাতক নাইমকে আটক করেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, রহিম বেপারী (৫০) ভ্যানে মাছের পোনা বিক্রি করে সংসার চালাতেন। প্রায় পাঁচ বছর যাবৎ নাইম মাদকাসক্ত। তাকে বাধা দিয়েও মাদক থেকে দূরে রাখতে পারেননি রহিম। সম্প্রতি নাইম মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। রোববার বিকেলে বাবার সঙ্গে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নাইম ধারালো দা দিয়ে কোপ দিয়ে বাবার মাথা আলাদা করে দেয়।

এ সময় মা পেয়ারা বেগম (৪৫) এগিয়ে এলে তাকেও কুপিয়ে আহত করে নাইম। গুরুতর আহত অবস্থায় পেয়ারা বেগমকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পালং মডেল থানা পুলিশ ঘাতক নাইমকে আটক করে এবং মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে পাঠায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য লিটন দেওয়ান বলেন, ছেলেটি মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় পরিবারের সদস্যরা তাকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখতো।

পালং মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান জানান, রহিম বেপারীর মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ