img

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে দেশের ১২ জেলার ৮৭ উপজেলায় ভোট হবে আগামী ১০ মার্চ।

রোববার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

ইসি সচিব বলেন, পাঁচ ধাপে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম ধাপে ৮৭ উপজেলায় ১০ মার্চ ভোট গ্রহণ হবে। দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৪ এবং চতুর্থ ধাপে ভোট হবে ৩১ মার্চ।

তিনি বলেন, প্রথম ধাপের মনোনয়ন জমার শেষ দিন ১১ ফেব্রুয়ারি, বাছাই ১২ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে ১৯ ফেব্রুয়ারি।

গত ১৪ জানুয়ারি ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সংবাদ সম্মেলন করে জানান, আট বিভাগের উপজেলাগুলোকে চার দিনে চার ধাপে ভোটগ্রহণ করা হবে। বাকিগুলোর মেয়াদউত্তীর্ণ কবে হচ্ছে তা বিবেচনায় নিয়ে পরবর্তী ধাপে ভোট শেষ করা হবে।

এ নির্বাচনের ভোটগ্রহণেও ইভিএম ব্যবহার করা হবে জানিয়ে তখন তিনি বলেন, জেলার সদর উপজেলাগুলোতে পুরোপুরি ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

আগের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনগুলো নির্দলীয়ভাবে হয়েছিল। তবে আইন সংশোধন হওয়ায় এবার দলীয় প্রতীকে এ নির্বাচন হবে। অবশ্য ২০১৭ সালের মার্চে মেয়াদোত্তীর্ণ তিনটি উপজেলায় দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হয়েছিল।

বাংলাদেশে বর্তমানে ৪৯২টি উপজেলা পরিষদ রয়েছে। ১৯৮৫ সালে উপজেলা পরিষদ চালু হওয়ার পর ১৯৯০ ও ২০০৯ সালে একদিনেই ভোট হয়েছিল। ২০১৪ সালে ছয় ধাপে ভোট করেছিল তৎকালীন ইসি।

ওই নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল বিএনপি। এতে প্রথম তিন পর্বে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা সংখ্যা বেশি বিজয়ী হয়েছিল। তবে পরের তিন পর্বে আওয়ামী লীগ সমর্থিতরা তাদের ছাপিয়ে যায়।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ