img

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ধর্মীয় ও সাম্প্রদায়িক চেতনায় আঘাত করতে পারে— এমন বই প্রকাশকরা অমর একুশে গ্রন্থমেলায় আনতে পারবেন না। নতুন বই মেলায় এলে বাংলা একাডেমি তা যাচাই-বাছাই করবে। এ ছাড়া পুলিশও নজরদারি করবে। এ ধরনের বই পাওয়া গেলে বিক্রেতার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

কমিশনার বলেন, অমর একুশে গ্রন্থমেলা উপলক্ষে বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নজরদারি রাখা হচ্ছে। মেলার প্রতিটি ইঞ্চি সিসিটিভির মাধ্যমে মনিটর করা হবে। বাংলা একাডেমি অংশে দুটি প্রবেশপথ থাকবে, বের হওয়ার জন্য থাকবে একটি পথ। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মেলার যে অংশ আছে, সেখানে তিনটি প্রবেশপথ ও তিনটি বের হওয়ার পথ থাকবে। আর্চওয়ে মেটাল ডিরেক্টর দিয়ে তল্লাশি করা হবে।

তিনি বলেন, মেলায় পকেটমার, ছিনতাইকারী রোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও সাদা পোশাকের সদস্যরা কাজ করবেন। মেলা প্রাঙ্গণে থাকবে পুলিশের ওয়াচ টাওয়ার এবং পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা। যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকবে পুলিশের বিশেষায়িত বাহিনী সোয়াট ও বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জঙ্গি হামলার কোনো ধরনের আশঙ্কা নেই।

শুক্রবার র‌্যাবের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করতে আসেন র‌্যাব-৩-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল এমরানুল হাসান। নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কঠোর নজরদারি রাখা হয়েছে। গোয়েন্দা নজরদারিও রয়েছে। সর্বোচ্চ নিরাপত্তাবলয় তৈরি করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ